loading

Forex Basic Course

হেড এন্ড শোল্ডার প্যাটার্ন দিযে ট্রেড করার নিয়ম (ফুল আর্টিকেল)

  • 4.0 (20 reviews)
  • PUBLISH BY: FxsuccessBD
  • 27 Mar, 2019 11:14am
হেড এন্ড শোল্ডার প্যাটার্ন দিযে ট্রেড করার নিয়ম (ফুল আর্টিকেল)

আসল Head & Shoulders Pattern প্রায়শই ঘটে না, কিন্তু যখন এটি তৈরি হয় তখন অনেক ট্রেডাররা এই প্যাটার্নকে মার্কেটে একটা বড় ধরনের ট্রেন্ড রিভারসেল (Reversal) প্যাটার্ন হসাবে গন্য করে থাকে। ট্রেডার মহলে একটি পরিপূর্ন হেড এন্ড শোল্ডার টপ  প্যাটার্নকে ( Head & Shoulder Top Pattern) শক্তিশালী  Bearish Reversal প্যাটার্ন এবং একটি পরিপূর্ন ইনভারস হেড এন্ড শোল্ডার প্যাটার্নকে (Inverse Head & Shoulder Pattern) শক্তিশালী  bullish Reversal প্যাটার্ন হিসাবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে।

 

হেড এন্ড শোল্ডার প্যাটার্নের উপাদান:

আমরা জেনেছি যে, যখন এই প্যাটার্ন সম্পূর্ণরূপে গঠিত হয় তখন বেশিরভাগ ট্রেডার এই প্যাটার্নকে মার্কেটের একটা বড় ধরনের পরিবর্তনের সূত্রপাত হিসাবে গন্য করে থাকে। তবে আপনাকে আগে নিশ্চিত হতে হবে যে প্যাটার্নটি সঠিক আছে। Head & Shoulder প্যাটার্নে চারটি উপাদান রয়েছে যা প্যাটার্নটি নিশ্চিত করার জন্য উপস্থিত থাকা আবশ্যক।

  1. Right shoulder ডান শোল্ডার
  2. Head হেড বা মাথা
  3. Left shoulder বাম শোল্ডার
  4. Neckline break নেকলাইন

উল্লেখ্য যে অনেক সফল ট্রেডার বিশ্বাস করে শুধুমাত্র প্রাইস প্যাটার্ন দেখে সিদ্ধান্ত নিলে হবে না বরং এর সাথে Supply এবং Demand এনালাইসিসটাও করতে হবে, তাহলেই সঠিক এবং কার্যকরী সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়া যাবে এবং সঠিক ট্রেডটি নেওয়া যাবে।

Pattern timeframe (টাইমফ্রেম):

এই হেড এন্ড শোল্ডার প্যাটার্ন যেকোন টাইমফ্রেমেই গঠিত হতে পারে তবে সফল ট্রেডাররা মনে করে  এই প্যাটার্ন যত লংগার টাইমফ্রেমে গঠিত হবে ততো কার্যকরী রেজাল্ট দিবে। লংগার টাইমফ্রেম বলতে বোজান হচ্ছে Weekly বা Daily চার্টকে।

যেভাবে হেড এন্ড শোল্ডার টপ প্যাটার্ন গঠিত হয়:

  • হেড এন্ড শোল্ডার টপ প্যাটার্ন অবশ্যই আপট্রেন্ড মার্কেটে তৈরি হতে হবে এবং প্রাইস লেভেন আপট্রেন্ডে একটি নতুন রেসিস্টেন্স এরিয়া টেস্ট করবে যা পরবর্তীতে বাম শোল্ডার (Left Shoulder) হিসাবে গন্য হবে এবং এখান থেকে আবার বেয়ারিশ মোমেনটাম (Bearish Momentum) শুরু হবে এবং নিকটবর্তী সাপোর্টে গিয়ে শেষ হবে।
  • প্রাইস লেবেল সময়ীক কারেকশনের পর আবার আপট্রেন্ডের ধারাবাহিকতা মেনে চলবে এবং আগের পিক লেভেল থেকেও আরও হাইয়ার লেভেল টেস্ট করবে যা পরবর্তিতে এই প্যাটার্নের মাথা বা Head হিসাবে গন্য হব। এবং এখান থেকে আবার বেয়ারিশ কারেকশনে চলে যাবে এবং পূর্বের কারেকশন লেভেলের কাছাকছি যেতে পারে যেটা পরবর্তিতে NECKLINE হিসাবে কাজ করবে।
  • সাপোর্ট এরিয়া (NECKLINE)টেস্ট করার পর প্রাইস লেভেল পুনরায় বুলিশ ট্রেন্ড অনুসরণ করবে এবং বাম শোল্ডার বা প্রথম পিক লেভেলের কাছাকাছি চলে যাবে যেটা পরবর্তিতে ডান শোল্ডার হিসাবে পরিগনীত হবে। প্রাইস লেভেল পুনরায় Retracement-এ চলে যাবে এবং নেকলাইনের দিকে ধিরে ধিরে অগ্রসর হবে।
  • এই পর্যায়ে নেকলাইনটা একটা VERIFIED সাপোর্ট জোনে পরিনত হয়ে উঠবে। তবে মনে রাখতে হবে NECKLINE-টি Horizontal বা Diagonal-ও হতে পারে। অনেকে মনে করেন যে নেকলাইনটি Horizontal বা সোজাসুজি হতে হবে, যেটা একটা ভূল ধারনা। নিচে চিত্রের মাধ্যমে বিষয়টি পরিষ্কার করা হলো:

  • একটা বিষয় অবশ্যই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ, এই হেড এন্ড শোল্ডার প্যাটার্ন তখনই ১০০% কর্যকরী হবে যখন প্রইস লেভেল NECKLINE ব্রেক করবে এবং ব্রেক করার পরই আসল Bearish Trend শুরু হবে। এই ব্রেকআউট সাধারণত নিউজ টাইমে হয়ে থাকে এবং ব্রেকআউট ক্যান্ডেলটাও অনেক শক্তিশালী হয়ে থাকে।

যেভাবে ইনভার্স হেড এন্ড শোল্ডার বা হেড এন্ড শোল্ডার বটোম প্যাটার্ন (Inverse Head & Shoulders) গঠিত হয়:

  • এই প্যাটার্ন অবশ্যই ডাউনট্রেন্ড মার্কেটে হতে হবে এবং প্রাইস লেভেন ডাউনট্রেন্ডের নতুন সাপোর্ট এরিয়া টেস্ট করবে যা পরবর্তীতে বাম শোল্ডার (Left Shoulder) হিসাবে পরিগনিত হবে এবং এখান থেকে আবার বুলিশ মোমেনটাম (Bullish Momentum) শুরু হবে এবং নিকটবর্তী রেসিস্টেন্সে গিয়ে শেষ হবে।
  • প্রাইস লেবেল সাময়িক কারেকশনের পর আবার ডাউনট্রেন্ডের ধারাবাহিকতা মেনে চলবে এবং আগের BOTTOM লেভেল থেকেও আরও লোয়ার লেভেলে টেস্ট করবে যা পরবর্তিতে এই প্যাটার্নের মাথা বা Head হিসাবে পরিগনিত হবে। এবং এখান থেকে আবার বুলিশ কারেকশনে চলে যাবে এবং পূর্বের কারেকশন লেভেলের কাছাকছি যেতে পারে যেটা পরবর্তিতে NECKLINE হিসাবে কাজ করবে। চিত্রের দিকে লক্ষ করুন

  • রেসিস্টেন্স এরিয়া (NECKLINE)টেস্ট করার পর প্রাইস লেভেল পুনরায় বেয়ারিশ ট্রেন্ড অনুসরণ করবে এবং বাম শোল্ডার বা প্রথম Bottom লেভেলের কাছাকাছি চলে যাবে যেটা পরবর্তিতে ডান শোল্ডার হিসাবে পরিগনীত হবে। প্রাইস লেভেল পুনরায় Retracement-এ চলে যাবে এবং নেকলাইনের দিকে ধিরে ধিরে অগ্রসর হবে।
  • এই পর্যায়ে নেকলাইনটা একটা VERIFIED Resistance হিসাবে পরিনত হয়ে উঠবে। তবে মনে রাখতে হবে NECKLINE-টি Horizontal বা Diagonal হতে পারে যেকোনটাই হতে পারে। নিচে চিত্রের মাধ্যমে বিষয়টি পরিষ্কার করা হলে:
  • একটা বিষয় অবশ্যই সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ, এই হেড এন্ড শোল্ডার প্যটার্ন তখনই ১০০% কর্যকরী হবে যখন প্রইস লেভেল NECKLINE-কে ব্রেক করবে এবং ব্রেক করার পরই আসল Bearish Trend শুরু হবে। এই ব্রেকআউনটগুলো সাধারণত নিউজ টাইমে হয়ে থাকে এবং ব্রেকআউট ক্যান্ডেলটাও অনেক শক্তিশালী হয়ে থাকে।

পরবর্তী প্রাইসের টার্গেট নির্ধারন করা:

  • হেড বা পিক লেভেল থকে নেকলাইনের দুরত্ব পরিমাপ করতে হবে। উপরের চিত্রটি লক্ষ করুণ।
  • এই ধাপে ব্রেকআউট পয়েন্ট নির্ধারণ করতে হবে। ডান শোল্ডারটি নেকলাইনের যে পয়েন্টে ব্রেকআউট করেছে সেখান থেকে PIPS কাউন্ট করতে হবে এবং টার্গেট সেট করতে হবে। উদাহরণসরূপ হেড থেকে নেকলাইন এর দুরত্ব ২০০ পিপস তাহলে আমাদের পরবর্তী টার্গেট হবে নেকলাইন থেকে আরও ২০০ পিপস।

শেষকথা:

ফরেক্স মার্কেটে প্যাটার্ন এনালাইসিস অনেক গুরুত্বপূর্ন একটি বিষয় যেটা সব ট্রেডারদের অবশ্যই জানতে হবে।অনেক রকমের চার্ট প্যাটার্ন রয়েছে এবং তার মধ্যে হেড এন্ড শোল্ডার প্যাটার্ন অন্যতম।এই প্যাটার্নে যেটা বুঝানো হয়ে থাকে সেটা হল,,, মার্কেটে ট্রেডাররা অনেকবার চেষ্টা করেছে বুলিশ ট্রেন্ড ধরে রাখারে জন্য বা প্রাইস লেভেল আরও উপরে নেওয়ার জন্য কিন্তু ব্যর্থ হেয়ছে। এই করনে অধিকারংশ ট্রেডার বিশ্বাস করে এই প্যাটার্ন মার্কেটে শক্তিশালী রিবারসেল সিগনাল নির্দেশ করে থাকে।

Recent Article
loading
Broker Section